পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের নিয়াত আরবি ও বাংলা অর্থসহ-নামাজের নিয়ত

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের নিয়াত আরবি ও বাংলা অর্থসহ

নিয়াত শব্দের শাব্দিক অর্থ হলো, এরাদা/উদ্দেশ্য করা ।
প্রত্যেক ইবাদাত অথবা দুনিয়ার কোন কাজের জন্য নিয়াত অত্যান্ত জরুরী ।
বোখারী শরীফের প্রথম হাদিসে নিয়াত সম্পর্কে বলা হয়েছে ।
হযরত উমার ফারুক (রাঃ) থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,
انما الاعمال بالنيات
সমস্ত কর্মই সম্পন্ন হয় নিয়াতের উপর ।

নিয়াত বা উদ্দেশ্য দুনিয়াবী কাজকর্মের ক্ষেত্রে এবং ইবাদতের ক্ষেত্রে অত্যন্ত জরুরী । আপনি কাল কি কাজ করবেন, কোথায় যাবেন, কি খাবেন, সমস্ত কিছুর একটি উদ্দেশ্য বা নিয়ত মনের মধ্যে থাকে। তেমনি ইবাদত এর ক্ষেত্রেও আপনি কোন ওয়াক্তের কোন নামাজ, কত রাকাত পড়বেন ওয়াজিব নামাজ নাকি ফরজ নামাজ, সুন্নত নামাজ নাকি নফল নামাজ তারও নিয়াত অবশ্যই থাকতে হবে ।
নিয়াত সম্পর্কে এতোটুকু জেনে রাখাই যথেষ্ট, আমি আর বেশি আলোচনা করছি না ।

নিয়ত দুই ভাবে করা যায়
(১) অন্তরে বা মনে মনে নিয়াত
যেমন উদাহরণস্বরূপ- আমি ২ রাকাত ফজরের ফরজ নামাজ আদায় করছি আল্লাহর জন্য মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার। মনে মনে এতটা ভাবলেই নিয়ত হয়ে যাবে ।
(২) মুখে উচ্চারণ করে নিয়াত ।
যেমন আমরা করে থাকি । নিজের মাতৃভাষাতেই নিয়ত করতে পারেন কোন সমস্যা নেই তবে আরবীতে নিয়াত করা উত্তম ।

এবার ৫ ওয়াক্তের ফরজ, ওয়াজিব, সুন্নাত, ও নফল নামাজের, আরবি ও বাংলা নিয়ত খুব সুন্দর ভাবে আপনাদের সামনে তুলে ধরছি ।

(১) ফজর নামাজ ।

ফজরের নামাজ ৪ রাকায়াত
২ রাকায়াত সুন্নাত ২ রাকায়াত ফরজ ।
ফজরের ২ রাকাত সুন্নাত নামাজের আরবি নিয়াত:-

نويت ان اصلي لله تعالى ركعتى صلواة الفجر سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ :-
“নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তাআলা রাকয়াতাই সালাতিল ফাজরি, সুন্নাতা রাসুলিল্লা-হি তাআলা মুতাও য়াজজিহান ইলা জিহাতিল কা’বাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি দুই রাকাত ফজরের সুন্নত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কাবা’ শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

ফজরের ২ রাকাত ফরজ নামাজের আরবি নিয়াত:-
نويت ان اصلي لله تعالى ركعتى صلواة الفجر فرض الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তাআলা রাকয়াতাই সালাতিল ফাজরি, ফারজাল্লা-হি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কা’বাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি দুই রাকাত ফজরের ফরজ নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কাবা’ শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

বিশেয় দ্রষ্টব্যঃ ইমাম হলে-(জামাতের যদি কেউ ইমাম হয়) তাহলে, মুতাওয়াজ্জিহান এর আগে “আনা ইমামুল্লিমান হাজারা ও মাইয়্যাফজুরু” বলবে, আর মুক্তাদী হলে মুতাওয়াজ্জিহান এর আগে “এক্তাদাইতু বিহা-যাল ইমাম’ বলবে ।

আর একা নামাজ পড়লে বলার প্রয়োজন নেই । জামাতে নামাজ আদায় করার ক্ষেত্রে ইমাম ও মুক্তাদীকে এ বিষয়টি অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে ।

(২) জোহরের নামাজ
জোহরের নাময মোট ১২ রাকাত।
৪ রাকায়াত সুন্নাত ৪ রাকায়াত ফরজ ২ রাকায়াত সুন্নাত ২ রাকায়াত নফল ।

জোহরের ৪ রাকায়াত সুন্নত নামাজের আরবি নিয়াত:-
نويت ان اصلي لله تعالى اربع ركعات صلواة الظهر سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- “নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি-তাআলা আরবাআ রাকয়াতি সালাতিজ জুহরি সুন্নাতা রাসুলিল্লা-হি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৪রাকায়াত জোহজের সুন্নাত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কাবা’ শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

জোহরের ৪ রাকায়াত ফরজ নামাজের আরবি নিয়ত:-
نويت ان اصلي لله تعالى اربع ركعات صلواة الظهر فرض الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ :- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তায়ালা আরবায়া রাকয়াতি সালাতিজ জুহরি ফারজাল্লাহি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৪ রাকায়াত জোহরের ফরজ নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কাবা’ শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

জোহরের ২ রাকায়াত সুন্নত নামাজের আরবি নিয়ত:-
نويت ان اصلي لله تعالى ركعتى صلواة االظهر سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- “নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তায়ালা রাকায়াতাই সালাতিজ জুহরি সুন্নাতা রাসূলিল্লা-হি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি দুই রাকাত জোহরের সুন্নাত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

দুই রাকাত নফল নামাজের আরবি নিয়াত:-
نويت ان اصلي لله تعالى ركعتى صلواة النفل متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তাআলা রাকয়াতাই সালাতিন নাফলি, মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কা’বাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি দুই রাকাত নফল নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

(৩) আছরের নামাজ

আছরের নামায মোট ৮ রাকাত।

আছরের চার রাকায়াত সুন্নাত নামাযের আরবি নিয়ত:-

نويت ان اصلي لله تعالى اربع ركعات صلواة العصر سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- “নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি-তাআলা আরবাআ রাকয়াতি সালাতিল আসরি সুন্নাতা রাসুলিল্লা-হি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৪ রাকায়াত আসরের সুন্নাত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

(আসরের চার রাকায়াত সুন্নাত নামাজ কে সুন্নাতে গায়ের মোয়াক্কাদা বলা হয় । পড়লে নেকি পাওয়া যায় না পড়লে গুনাহ হয় না)

আছরের চার রাকায়াত ফরজ নামাযের আরবি নিয়াত:-

نويت ان اصلي لله تعالى اربع ركعات صلواة العصر فرض الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায়:- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তায়ালা আরবায়া রাকয়াতি সালাতিল আসরি ফারজাল্লাহি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৪ রাকায়াত আসরের ফরজ নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

(৪) মাগরিবের নামাজ
মাগরিবের নামায মোট ৭ রাকায়াত ।
৩ রাকায়াত ফরয ২ রাকায়াত সুন্নাত এবং ২ রাকায়াত নফল ।

মাগরিবের ৩ রাকায়াত ফরজ নামাযের আরবি নিয়াত-
نويت ان اصلي لله تعالى ثلث ركعات صلواة المغرب فرض الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر

বাংলায়:- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তাআলা ছালাছা রাকয়াতি সালাতিল মাগরিবি ফারজিল্লা-হি তাআলা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।”

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৩ রাকায়াত মাগরিবের ফরজ নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

মাগরিবের ২ রাকায়াত সুন্নাত নামাযের আরবি নিয়ত:-
نويت ان اصلي لله تعالى ركعتى صلواة المغرب سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر

বাংলায় :- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তাআলা রাকয়াতাই সালাতিল মাগরিবি সুন্নাতা রাসূলিল্লা-হি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ২ রাকায়াত মাগরিবের সুন্নাত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

দুই রাকায়াত সুন্নত নামায শেষ হইলে দুই রাকয়াত নফল নামাজ পড়তে হবে ।

(৫) ঈশার নামাজ
ঈশার নামাজ মোট ১৭ রাকায়াত ।
৪ রাকায়াত সুন্নাত ৪ রাকায়াত ফরজ ২ রাকাত সুন্নাত ২ রাকায়াত নফল ৩ রাকায়াত বিতর ২ রাকায়াত নফল ।

শার ৪ রাকায়াত সুন্নত নামাজের আরবি নিয়ত:-

نويت ان اصلي لله تعالى اربع ركعات صلواة العشاء سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তায়ালা আরবায়া রাকয়াতি সালাতিল ঈশায়ি সুন্নাতা রাসুলিল্লাহি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৪ রাকায়াত ঈশার সুন্নাত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

(ঈশার সরোজ এর পূর্বে ৪ রাকাত সুন্নাত নামাজ সুন্নাতে গাইর মুয়াক্কাদা, পড়লে নেকি পাওয়া যাবে না পড়লে গুনাহ হবে না,ঠিক যেমন নফল নামাজ পড়লে নেকি পাওয়া যায় না পড়লে গুনাহ হয় না)

এশার চার রাকায়াত ফরজ নামাজের আরবি নিয়াত:-
نويت ان اصلي لله تعالى اربع ركعات صلواة العشاء فرض الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ:- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তায়ালা আরবায়া রাকয়াতি সালাতিল ঈশায়ি ফারজাল্লাহি তায়ালা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার”।

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৪ রাকায়াত ঈশার ফরজ নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

২ রাকায়াত ঈশার সুন্নাত নামাজের বার্বি নিয়াত:-
نويت ان اصلي لله تعالى ركعتى صلواة العشاء سنة رسول الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায় উচ্চারণ :-
“নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তাআলা রাকয়াতাই সালাতিল ঈশায়ি, সুন্নাতা রাসুলিল্লা-হি তাআলা মুতাও য়াজজিহান্ ইলা জিহাতিল কা’বাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।)

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি দুই রাকাত ঈশার সুন্নত নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

এরপর কেউ চাইলে দুই রাকাত নফল নামাজ পড়তে পারেন । নফল নামাজের নিয়ত ভিডিওর প্রায় প্রথম দিকে আলোচনা হয়েছে ।

তিন রাকায়াত বিতর নামাজের আরবি নিয়ত:-
نويت ان اصلي لله تعالى ثلث ركعات صلواة الوتر واجب الله تعالى متوجها إلى جهة الكعبة الشريفة الله اكبر
বাংলায়:- “নাওয়াইতু আন্ উসাল্লিয়া লিল্লা-হি তাআলা ছালাছা রাকয়াতি সালাতিল বিতরী ওয়াজিবাল্লা-হি তাআলা মুতাওয়াজজিহান ইলা জিহাতিল কাবাতিশ শারীফাতি আল্লাহু আকবার।”

অর্থ/বাংলায় নিয়াত:-
“আমি ৩ রাকায়াত বিতরের ওয়াজিব নামাজের নিয়াত করছি আল্লাহ তা’আলার জন্য, মুখ আমার কা’বা শরিফের দিকে আল্লাহু আকবার” ।

এরপর শেষে দুই রাকায়াত নফল নামাজ পড়তে হবে ।

৫ টি ভুলের কারণে সংসারে অশান্তি নেমে আসে

Spread the love

Leave a Comment