ইমামকে রুকূতে পাওয়া গেলে মুক্তাদি কি করবে?

ইমামকে রুকূতে পাওয়া গেলে মুক্তাদি কি করবে? জবাবঃ ✅(ক) ইমামকে রুকূতে পেয়ে কেউ যদি দাঁড়ানো অবস্থায় তাকবীরে তাহরীমা বলে হাত না বেঁধে রুকূর তাকবীর না বলেই সরাসরি রুকূতে চলে যায়, তাহলে তার নামায সহীহ হয়ে যাবে। তবে ‍সুন্নাতের খেলাফ হবে। সুন্নাত তরীকা হচ্ছে, তাকবীরে তাহরীমা বলার পর হাত না বেঁধে স্বতন্ত্রভাবে রুকূর তাকবীর বলে রুকূতে …

Read moreইমামকে রুকূতে পাওয়া গেলে মুক্তাদি কি করবে?

নামাজ অন্যায় ও অশোভন কাজ থেকে বিরতো রাখে

নামাজ অন্যায় ও অশোভন কাজ থেকে বিরতো রাখে ইসলামের অতি গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ হলো সালাত। হাদীস শরীফে ইরশাদ হয়েছে– أَوّلُ مَا يُحَاسَبُ بِهِ الْعَبْدُ يَوْمَ الْقِيَامَةِ صَلَاتُهُ অর্থ: কিয়ামত দিবসে বান্দার সর্বপ্রথম হিসাব নেওয়া হবে নামাজেরর মাধ্যমে। [মুসনাদে আহমাদ, হাদীস ১৬৯৪৯; সুনানে আবু দাউদ, হাদীস ৮৬৬] হযরত উমর (রাদিআল্লাহু তা’আলা আ’নহু) এর প্রসিদ্ধ বাণী– إِنّ أَهَمّ …

Read moreনামাজ অন্যায় ও অশোভন কাজ থেকে বিরতো রাখে

একা নামাজ পড়লে সূরা-কিরা‘আত জোরে পড়তে হবে কি?

একা নামাজ পড়লে সূরা-কিরা‘আত জোরে পড়তে হবে কি? একাকী নামাযের কিরা‘আতের নিয়ম হলো, যে সকল নামাযের কিরা‘আত আস্তে পড়ার নিয়ম, যেমন- যোহর, আসর, সে সকল নামাযে কিরা‘আত আস্তেই পড়তে হয়, জোরে পড়ার অনুমতি নেই। আর যে সকল নামাযে কিরা‘আত জোরে পড়ার নিয়ম, যেমন- মাগরিব, ইশা, ফজর, সে সকল নামাযে কিরা‘আত আস্তে বা জোরে পড়া ইখতিয়ার …

Read moreএকা নামাজ পড়লে সূরা-কিরা‘আত জোরে পড়তে হবে কি?