নবী মুহাম্মদ (ﷺ) এর ইনতেকাল হয়েছে কি না এবং তিনি কি এখনও কবরে জীবিত আছেন?

নবী মুহাম্মদ (ﷺ) এর ইনতেকাল হয়েছে কি না এবং তিনি কি এখনও কবরে জীবিত আছেন?

সম্মানিত মুফতী সাহেব!
আমার প্রশ্ন হল,নবী মুহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ইনতেকাল হয়েছে কি না?
যদি তাঁর মৃত্যু হয়ে থাকে,তাহলে কি তিনি এখনও কবরে জীবিত আছেন?
কুরআন ও সহীহ হাদীস এর উদ্ধৃতিসহ বিস্তারিত জানাবেন।
প্রশ্নকারী:শাহজাহান সেখ,মুর্শিদাবাদ (পঃবঃ)

উত্তরঃ
যার জীবন আছে তারই মৃত্যু অবধারিত । এ থেকে নবী মুহাম্মদ (ﷺ) ব্যাতিক্রম নন।
এ বিষয়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত এর সুস্পষ্ট আকীদাহ হল,নবী (ﷺ) এর অবশ্যই ইন্তেকাল করেছেন, যেরূপ অনান্য সকল আম্বিয়া আলায়হিমুস সালামগন ইন্তেকাল করেছেন ।মহান আল্লাহ্ বলেছেন, كل نفس ذائقة الموت অর্থাত্ সকল প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। দ্র:-(সূরাহ আনকাবুত-৫৭)।
অন্যত্র আল্লাহ্ পাক নবীজী (ﷺ) কে সম্বোধন করে বলেছেন-إنك ميت و إنهم ميتون অর্থাত্ আপনারও (নবী ) মৃত্যু হবে ও তাদেরও মৃত্যু হবে ।দ্রঃ-(সূরাহ যুমার -৩০)
উপরোল্লিখিত আয়াতদ্বয়ের দ্বারা প্রমাণিত হয় যে,অনান্য নবীদের মতোই নবী মুহাম্মদ সঃ এরও মৃত্যু হয়েছে তাতে কোনও সন্দেহ নেই ।

দ্বিতীয় বিষয় হল,নবীজী স. স্বীয় কবর মুবারকে কি এখন জীবিত আছেন?

এই বিষয়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআতের আকীদাহ হল,নবী (ﷺ) আপন রওযা মুবারকে স্বশরীরে জীবিত আছেন । হুবহু আমাদের দুনিয়ার জীবনের মতো নয় বরং দুনিয়াবী জীবনের সাথে অনেকাংশে সাদৃশ্য ও মিল রয়েছে ।
পবিত্র কুরআনে হাকীমে আল্লাহ্ তায়ালা শহীদদের সম্পর্কে বলেছেন যে,

ولا تقولوا لمن يقتل في سبيل الله أموات بل أحياء ولكن لا تشعرون
অর্থাত্ আল্লাহর রাস্তায় যারা শহীদ হয়েছেন তাঁদের তোমারা মৃত বলো না, বরং তাঁরা তো জীবিত আছেন, কিন্তু তোমরা তা অনুভব করতে পার না।
দ্রঃ-(সূরাহ বাক্বারাহ-১৫৪)

এই আয়াতে আল্লাহ্ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা শহীদদের জীবিত বলেছেন ।নবীগন শহীদদের থেকেও অনেক উচ্চসম্মানি ও উচ্চ মর্যাদার অধিকারী।সুতরাং আম্বিয়া আঃ গনের বারযাখী জীবন শহীদদের থেকেও অনেক উচ্চতর এটা স্বাভাবিক।
তাই কবরের সুউচ্চ বারযাখী জীবনের কিছু প্রভাব দুনিয়ার জীবনের বিধিনিষেধের ক্ষেত্রেও পরিলক্ষিত হয়। এ কারণেই নবীজীর স্ত্রীদের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া কারও জন্য বৈধ নয় ।
উল্লেখ্য যে,নবীগন কবরে জীবিত রয়েছেন এই মর্মে একাধিক হাদীস বর্ণিত আছে।


عن أنس بن مالك رضي الله عنه قال قال رسول الله صلي الله عليه و سلم :الأنبياء أحياء في قبورهم يصلون
অর্থঃ হযরত আনাস ইবনে মালিক (রাঃ) হতে বর্ণিত হয়েছে, তিনি বলেছেন যে,রসূলুল্লাহ স. বলেছেন, সমস্ত আম্বিয়াগন স্বীয় কবর মুবারকে জীবত অবস্থায় নামায আদায় করছেন ।
দ্রঃ-(মুসনাদে আবী ইয়ালা আল-মুসিলী,পৃঃ-৬৫৮, হাদীস নম্বর-৩৪২৫)


عن أوس بن أوس رضي الله عنه قال قال رسول الله صلي الله عليه و سلم :إن الله حرم على الأرض أن تأكل أجساد الأنبياء
অর্থ : নবী স. বলেছেন, অবশ্যই আল্লাহ্ তায়ালা যমীনের জন্য আম্বিয়াদের শরীর মুবারক কে হারাম করে দিয়েছেন ।
দ্রঃ-(মুসান্নাফ ইবনে আবী শাইবাহ -খন্ড-২,পৃষ্ঠা-২৯৮)


عن أنس بن مالك رضي الله عنه أن رسول الله صلي الله عليه و سلم قال :أتيت (و في رواية هداب) مررت على موسى ليلة أسرى بي عند الكثيب الأحمر و هو قائم يصلي في قبره
অর্থ :-মেরাজ রজনীতে আমার গমন হয়েছিল মূসা (আঃ) এর কবরের নিকট দিয়ে যা অবস্থিত ছিল একটি লাল বর্ণের টিলার নিকটে, সেখানে তিনি আপন কবরে দাড়িয়ে নামায পড়ছিলেন ।
দ্রঃ-(সহীহ মুসলিম-খন্ড-২,পৃষ্ঠা-২৬৮)

عن أبي هريرة رضي الله عنه قال قال رسول الله صلي الله عليه و سلم :ما من أحد يسلم علي إلا رد الله روحي حتي أرد عليه السلام.
অর্থ : হযরত আবূ হুরাইরাহ (রাঃ) বলেন যে,রসূলুল্লাহ স. বলেছেন, যে কেউ আমার প্রতি সালাম প্রেরণ করলেই আল্লাহ্ তায়ালা আমার রূহকে ফিরিয়ে দেন, যাতে করে আমি তার সালামের উত্তর দিতে পারি।
দ্রঃ-(আবূ দাউদ -পৃঃ-২৯৪)

عن أبي الدرداء رضي الله عنه قال قال رسول الله صلي الله عليه و سلم :فنبي الله حي يرزق.
অর্থ : হযরত আবূ দারদা (রাঃ) বলেন যে,রসূলুল্লাহ স. বলেছেন যে, আল্লাহর নবী জীবিত রয়েছেন তাঁকে রুযী(আহার) দেওয়া হয়।দ্রঃ-(ইবনে মাজাহ-খন্ড-১,পৃষ্ঠা-১১০)

উল্লেখ্য যে,হায়াতুন নবী অর্থাত্ নবীজী আপন কবর মুবারকে জীবত আছেন এই বিষয়টি একটি ইজমায়ী আকীদাহ। দ্রষ্টব্যঃ(তোহফাতুল ক্বারী, খন্ড-১,পৃষ্ঠা-১৯৮)
قال الإمام الحافظ محمد بن عبد الرحمن السخاوي الشافعي ” و نحن ونؤمن و نصدق بأنه صلي الله عليه و سلم حي يرزق في قبره و إن جسده الشريف لا تأكله الأرض و الإجماع على هذا
(القول البديع للعلامة السخاوي-١٧٢)

উপরোল্লিখিত আয়াত ও সহীহ হাদীসসমূহ থেকে প্রমাণিত হয় যে, নবী স. আপন কবর মুবারকে স্বশরীরে জীবিত রয়েছেন ।

و الله أعلم بالصواب.

উত্তর প্রদানকারী :
মুফতী আজমত আলী,প্রধান শিক্ষক লালবাগ টিকটিকিপাড়া মাদরাসা,
মুর্শিদাবাদ, পঃবঃ (ভারত),তারিখ:০৬|১০|২০২০ মঙ্গলবার ।

ইমেল:[email protected]

Spread the love

Leave a Comment